Latest News

মেনিনগাকেক্কাল ইনফেকশন

মেনিনগাকেক্কাল ইনফেকশন কি ?
মেনিনগাকেক্কাল ইনফেকশন গবহরহমড়পড়পপঁং ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণে হয়। এই ইনফেকশনের ফলে মেনিনজাইটিস অথবা সেপ্টিসেমিয়া হতে পারে।

এই ইনফেকশনের ফলে সৃষ্ট রাগেগুলাে কি কি ?
এই ইনফেকশনের ফলে সৃষ্ট রোগগুলি হচ্ছে:
মেনিনজাইটিস
মেনিনজাইটিস হছে মস্তিস্কের মেমব্রেন এর প্রদাহ। এছাড়া এই ইনফেকশন সেরেব্রোস্পাইনাল ফ্লুইড এবং ¯œায়ুতন্তে সংক্রমিত হতে পারে। এর ফলে মস্কিস্ক এবং পাইনাল কর্ড এর মারাতœক ক্ষতি হতে পারে।
মেনিনগাকেক্কাসেমিয়া
মেনিনগাকেক্কাসেমিয়া হচ্ছে রক্তের প্রদাহ যা থেকে মারাতœক অবস্থার সৃষ্টি হতে পারে।
অন্যান্য
মেনিনগাকেক্কাল ইনফেকশন থেকে নিউমোনিয়া, মায়াকোডিটিস, পেরিকার্ডিটিস, কনজাংটিভাইটিস ইত্যাদি রাগে হতে পারে।

এ রোগে আপনি কিভাবে আক্রান্ত হতে পারেন?
আক্রান্ত ব্যাক্তির হাঁচি বা কাশির মাধ্যমে
আক্রান্ত ব্যাক্তির সং¯পর্শে আসলে
একই সংগে বসবাস করলে একই গৃহস্থালী জিনিস পত্র ব্যবহার
মুখের লালার মাধ্যমে
একই পাত্রে খাবার খেলে

এ রােেগর লক্ষণগুলি কি কি ?
সাধারণ লক্ষণগুলো হলো-
জ্বর হওয়া, তীব্র মাথাব্যথা
মাথা ঘারোনো, বমিবমি ভাব
ঘার শক্ত হয়ে যাওয়া
ফটোফোবিয়া
অস্থিসন্ধিতে ব্যথা
মনস্তাত্বিক পরিবর্তন

কত দ্রæত উপসর্গগুলো দেখা যায় ?
সংক্রমনের ২-৩ দিনের মধ্যে রোগের লক্ষণগুলো প্রকাশ পায়, কিন্তু সাধারনত ৫ দিনের মধ্যে দেখা যেতে পারে।

এ রোগটির কোন চিকিৎসা আছে কি ?
প্রাথমিক অবস্থায় রোগটি নির্ণয় করা গেলে, উপযুক্ত এন্টিবায়োটিক এর মাধ্যমে চিকিৎসা সম্ভব। তবে এই চিকিৎসা ব্যয় বহুল এবং সময় সাপেক্ষ।

এ রোগটি প্রতিরােেধর উপায় কি ?
ভ্যাকসিন নেয়ার মাধ্যমে, মেনিনগাকেক্কাল ইনফেকশন প্রতিরাধ করা যায়। ২ বছরের উর্দ্ধে ০.৫ মি.লি. এর শুধু মাত্র একটি ডোজ, যেকোন দিন। ৩ বছর পর একটি বুস্টার ডোজ নিতে হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *